The One-Person and One-Party Fascistic Rule of Sheikh Hasina and Her Reckless Excesses

Pub: Thursday, September 5, 2019 5:14 PM   |   Upd: Thursday, September 5, 2019 5:14 PM
 
 
 

Sheersha Khobor Dot Com

That Continue to Defy a Balanced Narrative (Part 4 of 6)
By
Q M Jalal Khan

No academic theory or ideology is any good to explain the excesses of the ruthless Hasina regime. It is constantly in violation of all democratic norms and rules and opposition rights and rooms as it is continuously in violation of state organs and agencies. There cannot be any other analysis than what it is, be it polemic or anything else, in writing about the regime. Until 2006, one could at least follow a balanced line of thinking but, since 2007, the Fakhruddin-Moinuddin-Masududdin gang and the Hasina gong that followed deserve a narrative of hard hit only the way these hit the opposition hard and play/ed with the entire political system at their will and whim.
Since 2009, as Zoglul Husain, a political observer and commentator from the UK, asserts (in his group email of 2 August 2019), “the Hasina regime has been one of indiscriminate killings, abductions, tortures, plunders, and Indian hegemony. Bangladesh had an acceptable democracy between 1991 and 2006. 1/11 of 2007 was a conspiracy of India, supported by the US and its allies, including the UN, still largely a rubber stamp of the US. The 2008 election was held under the conspiracy by ballot box stuffing with pre-determined results–BNP 30, JI 2. Had there been free and fair elections, the BNP alliance would have won in 2008, 2014 and 2018. That is why 1/11 2007 conspiracy was implemented to subjugate Bangladesh by India and plunder it recklessly.”
In support, Ranu Chowdhury, a political analyst from the USA, rightly argues, “It was more than a coup that re-installed Sheikh Hasina in January 2009. The whole episode from 1/11 to Emergency to rounding up of top leaders to Minus Two to finally an engineered balloting on December 29, 2008 was to ensure an Awami victory. The whole game was masterminded by India. In its long-drawn hegemonic scheme, India tagged the US, Israel and other material forces along on false pretense about Bangladesh. The carefully drawn plot was executed by the national betrayer Moeen U Ahmed, then army chief. The game did not end there. India continued to ensure that its protege Hasina remained on the throne, because it has huge interests and stakes attached with Hasina. We know the rest of the story: scrapping the CTG, Sujatha Singh dash to Dhaka, January 5 (2014) farce, midnight coup on December 29 (2018) and hat not.” (Group email of 2 August 2019).
The Hasina regime’s fascism characterized by its predatory, omnivorous as well as carnivorous nature knows no bounds. It is working to the detriment of both the letter and the spirit of social justice, the rule of law, tolerance, freedom, transparency, acceptance, accommodation, accountability, and democratic polity. Regardless of how academically theorized and ideologized, from historical and sociological points of view, one’s analyses are, the fact–lamentable as it is—remains that the extremely vile and vulgar hooliganism of the Hasina regime has proven to be resistant to all theories and ideologies. This has become possible by virtue of her all-devouring Gopal and Gestapo police and all other state organs and commissions shamelessly twisted and turned and tarnished and tailored in Hasina’s favor—all, sadly, dented and demented and diminished and domesticated by her. Her vengeful and low-gazing vision has cost her the role of a great political leader that she could otherwise be. Her shrewish, womanish, and step-motherly/step-sisterly traits and tendencies (as in the folktales of “Beauty and the Beast,” “Cinderella,” “Snow-White” and “The Sleeping Beauty”) have caused her gain the role of an oppressive, jealous and malicious tyrant over the great majority and their popular leader Khaleda, who has been memorably characterized by her democratic statesmanship since the mid-1980s.
“That is no country for old men,” Yeats once said out of his frustration with some aspects of his native Ireland. The same can be said of Bangladesh under Hasina with 100% justification where there is every reason for both the young and the old to be extremely unhappy and displeased. It is a country where everything is garbled, grinded, grabbed, twisted, trodden, stolen, intrigued, guided, controlled, managed, restricted, regimented, manipulated, engineered, politicised, prearranged, pre-set, pre-built—be it a matter of voting, money, power, the rule of law, social justice, freedom, criminal investigation, education, jobs, appointments, transfer, promotion, courts and commissions. The large-scale “secular” immodesties and immoralities, and corruptions and cruelties have left no sector untouched and undefiled. Having won the election by virtue of the BNP votes, Sultan Mohammad Mansour, instead of protesting the nationwide infernal and unprecedented vote rigging (স্থুল কারচুপি ও ভোট ডাকাতি), is audaciously asking the BNP to change along the Awami lines and has no shame in joining the sham and sundry Awami parliament nakedly and nauseatingly stolen by his arrogant Hasina-led Awami followers. What a deception! Having won under the banner of Zia’s sheaf of paddy, he visits not the grave of Zia right at the heart of Dhaka, but that of Sheikh Mujib far away from Dhaka as a sign of admiration and veneration for the latter. According to common consent, while Zia declared (“I, Major Ziaur Rahman, do hereby declare the independence of Bangladesh”) and fought for independence, Mujib neither wanted an independent Bangladesh nor, having arranged a safe exit and wishing Pakistan to remain united for him to have a chance to become its Prime Minister, did he fight for Bangladesh.
According to Tajuddin Ahmed, বাংলাদেশের প্রবাসী সরকারের প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমেদ ১১ এপ্রিল ১৯৭১ তাঁর ভাষণে বলেছিলেন, “স্বাধীনতা যুদ্ধে চট্টগ্রামের সেনা বিদ্রোহের অবদান ছিলো স্ট্যালিনগ্রাডের মত”। অর্থাৎ, ষ্টালিনগ্রাডের যুদ্ধে রাশিয়ার বিজয় না হলে ২য় বিশ্বযুদ্ধের ফলাফল যেমন ভিন্ন রকম হতো, তেমনি চট্টগ্রামে মেজর জিয়ার সেনাবিদ্রোহ না ঘটলে বাংলাদেশকে স্বাধীনতার মুখ দেখতে হতো না। সেনাবিদ্রোহের ঐ দুঃসাহসী কাজটি করেছিলেন অকুতোভয় সেনানী মেজর জিয়া । Sheikh Hasina is leaving a trail of the acts of vandalism by having the signs and murals and structures associated with the declarer/proclaimer of independence, Zia, one of the greatest freedom fighters ever. On the other hand, Mujib harbored an intention, wisely or unwisely, to become prime minister of the united Pakistan. His case was similar to Rabindranath Tagore who wanted a united Bengal, not a separate East Bengal nor a University in Dhaka, both of which he opposed with anathema. Neither did Mujib want Tagore’s song আমার সোনার বাংলা /Amar Sonar Bangla (that was written for a united Bengal in 1905/6 and, according to critics, that is full of idolatry and idolatrous sentiments) as the national anthem of Bangladesh. Instead, he wanted D L Roy’s ধন ধান্য পুষ্প ভরা আমাদের এই বসুন্ধরা/Dhana Dhannya Pushpo Bhara Amader Ei Boshundhrara (“This earth of ours is filled with riches, rice, and flowers”) to have that status.
The comment that Sharmin Ahmad made about the tragic assassination of Mujib on 15 August 1975 (that was in sharp contrast with the tragic assassination of President Ziaur Rahman on 30 May 1981, the latter having been a wartime hero, a celebrated freedom fighter, an Army Chief and then a highly popular President, of which Mujib was none) is worth-quoting: that many people expressed their jubilation in support of the death of Mujib whose popularity was then somewhere around zero and the people highly disappointed by his tyrannical leadership eagerly wished his downfall: “অনেক মানুষ এই হত্যাকান্ডে উল্লাস প্রকাশ করেছে। হত্যাকান্ডকে সমর্থন করে কেউ কেউ স্লোগানও দিচ্ছে। পঁচাত্তরে মুজিব কাকুর জনপ্রিয়তা ছিল শূন্যের কোঠায়। তার নেতৃত্ব সম্পর্কে হতাশাগ্রস্ত জনগণ তার স্বৈরশাসনের অবসান কামনা করছিল।“ Regarding the 15 August 1975, well-known bloggers Shamsul Alam and Shadhin Mahfoj Mohon are on the same page, being of the same opinion as Sharmin, all describing the day as the day of the fall of a one-party brutal dictatorship. Alam writes:

বাংলাদেশের ২য় মুক্তির দিবস আজ। ১৯৭৫ সনের এই রাতে সশস্ত্র সামরিক অভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশকে রক্ষা করা হয় একদলীয় শাসন ও এক ব্যক্তির স্বৈরশাসন বাকশাল থেকে। প্রথমে লে.কর্নেল ফারুক রহমান এবং লে.কর্নেল খন্দকার আবদুর রশিদের নেতৃত্বে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর দু’টি ইউনিট সফল অভ্যুত্থান ঘটনোর পরে পুরো সেনাবাহিনী এর সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে। ঐ সেনা অভ্যুত্থানে নিহত হন তৎকালীন বাকশাল সিস্টেমের রাষ্ট্রপতি শেখ মুজিবুর রহমান, এবং তার পরিবারের বেশিরভাগ সদস্য। অভ্যুত্থানের পরে ভূতপূর্ব মুজিব সরকারের বানিজ্যমন্ত্রী খোন্দকার মুশতাক আহমদের নেতৃত্বে আগেকার ক্যাবিনেটের ১৬ জন সদস্য নিয়ে সরকার গঠন করা হয়। নতুন কেবিনেটে ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসাবে শপথ নেন ভূতপুর্ব রাষ্ট্রপতি মুহম্মদউল্লাহ, যাকে ৭ মাস আগে অসম্মানকভাবে হটিয়ে শেখ মুজিব রাষ্ট্রপতির পদ দখল করেছিলেন সাংবিধানিক ক্যু-এর মাধ্যমে! ভারত, চীন, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, সৌদি আরব সহ বিশ্বের প্রভাবশালী রাষ্ট্রগুলি নতুন সরকারকে স্বীকৃতি প্রদান করে অভিনন্দন জানায়। সেনা, নৌ, বিমান বাহিনী, ফ্রন্টিয়ার্স, পুলিশ বাহিনী সহ সকলে নতুন সরকারের প্রতি আনুগত্য পোষণ করে। আজ দীর্ঘ সময় পরে অনেকে বিভিন্নভাবে ব্যাখা করতে চাইলেও ঘটনার পর যে সব গুরুত্বপূর্ণ মন্তব্য জাতি শুনতে পায়ঃ

আওয়ামীলীগের সিনিয়র নেতা ও সংসদের স্পীকার আবদুল মালেক উকিল ‘ফেরাউনের পতন হয়েছে…দেশ একজন স্বৈরাচারের হাত থেকে মুক্ত হয়েছে’ – বলে সন্তোষ প্রকাশ করেন। #আওয়ামীলীগের প্রাক্তন দুই সভাপতি মওলানা ভাসানী ও আবদুর রশীদ তর্কবাগিশ দুজনকেই শেখ মুজিব পিতৃবৎ সম্মান করতেন। তাঁরা দুজনই মোশতাকের সাফল্যের জন্য দোয়া করেছিলেন এবং মুজিব হত্যাকে সমর্থন দিয়েছিলেন। মাওলানা ভাসানী বলেন, “এটা ঐতিহাসিক পদক্ষেপ। আল্লাহ সহায় হোন”, অন্যদিকে মাওলানা তর্কবাগীশ বলেন, “দেশে আইনের শাসন, শান্তি ও সমৃদ্ধি প্রতিষ্ঠা করতে খোন্দকার মুশতাককে আল্লাহ সহায় হউন।”#শেখ মুজিবের সময়কার (১৯৭২-৭৩) রাষ্ট্রপতি বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরী মন্তব্য করেন, “রাষ্ট্রপতি মুশতাক আহমদ গণতন্ত্রে বিশ্বাস করেন, তিনি দেশে গণতন্ত্র ফেরানোর চেষ্টা করে যাচ্ছেন।”#বর্তমান যুগে শেখ হাসিনার আমলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জন প্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম অবশ্য কয়েক বছর আগে স্বীকার করে নেন, “১৫ আগস্টের পরিবেশ আওয়ামী লীগ নিজেরাই সৃষ্টি করেছিল!” #শেখ মুজিবের পরম বন্ধু মানিক মিয়ার পুত্র আনোয়ার হেসেন মঞ্জু ‘ঐতিহাসিক নবযাত্রা’শিরোনামে দৈনিক ইত্তেফাকে সম্পাদকীয় লিখেন ১৬ আগস্ট। এতে বলা হয়, ‘বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় জীবনে এই পরিবর্তনের এক বিষাদময় গুরুত্ব রহিয়াছে। ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্ত ও অসংখ্য মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে আমরা একদিন যে স্বাধীনতা অর্জন করিয়াছিলাম সেখানে আমাদের আশা ও স্বপ্ন ছিল অপরিমেয়। কিন্তু গত সাড়ে তিন বছরেরও ঊর্ধ্বকালে দেশবাসী বাস্তবক্ষেত্রে যাহা লাভ করিয়াছে তাহাকে এক কথায় গভীর হতাশা ও বঞ্চনা ছাড়া আর কিছুই বলা যায় না। …গণমানুষের ভাগ্য উন্নয়নের পরিবর্তে দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতির আশ্রয় গ্রহণ করিয়া এবং একটি বিশেষ গোষ্ঠীকে স্থায়ীভাবে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত রাখিবার দুর্নিবার আকাঙ্ক্ষায় মাতিয়া উঠিয়া স্বাধীনতার সুফল হইতে জনগণকে নির্মমভাবে বঞ্চিত করা হইয়াছে।’ সম্পাদকীয়তে এসব প্রেক্ষাপট তুলে ধরে সামরিক হস্তক্ষেপ অনিবার্য হয়ে ওঠার কথা উল্লেখ করা হয়। #বর্তমান মহাজোটের শরিক ও হাসিনার ক্যাবিনটের বিগত মন্ত্রি রাশেদ খান মেনন তখন ইউনাইটেড পিপল্স পার্টি (ইউপিপি) যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসাবে পার্টির তৃতীয় প্রধান নেতা ছিলেন। এক বিবৃতিতে ইউপিপি বলেছিল—‘সামরিক অভ্যুত্থানে শেখ মুজিবের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে গত সাড়ে তিন বছরের ঘৃণ্য ও গণধিকৃত মুজিবী রাজত্বের অবসান হয়েছে। লুট-দুর্নীতি, দুর্ভিক্ষ-অনাহার, চোরাচালান-পারমিটবাজি, স্বৈরাচার-পারিবারিক রাজত্ব কায়েম, জাতীয় স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা ও অবমাননায় বিক্ষুব্ধ জনগণ প্রতি মুহূর্তে মুজিবের পতন কামনা করেছে। পরম ধৈর্য ও সাহসিকতা নিয়ে সংগঠিত হয়েছে মুজিবী শাসন ব্যবস্থাকে চিরতরে কবর দেয়ার জন্য। মুজিবের অপসারণে জনগণ উল্লসিত। তার মৃত্যু কারও মনে সামান্যতম সমবেদনা বা দুঃখ জাগায়নি–জাগাতে পারে না।… এদেশের মানুষের দীর্ঘদিনের সংগ্রামের ইতিহাস জাতীয় স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব, গণতন্ত্র ও অর্থনৈতিক মুক্তি অর্জনের লড়াইয়ের ইতিহাস। শেখ মুজিব ও তার সহচররা জনগণের সেই লড়াইয়ের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে। গণতন্ত্রকে হত্যা করে কায়েম করেছে স্বৈরাচার ও পারিবারিক শাসন।… মুজিব তার সিংহাসন থেকে হুকুম করেছে নির্বিচারে জনগণ ও গণতান্ত্রিক কর্মীদের হত্যা, গ্রেফতার, এমনকি সপরিবারে ধ্বংস করার জন্য। জেলে আটক হাজার হাজার রাজবন্দি, বিভিন্ন অঞ্চলে আবিষ্কৃত গণকবর এর প্রমাণ।…’ (সূত্র: শাহ আহমদ রেজার যৌথ গ্রন্থ ‘২১ দফা থেকে ৫ দফা’, ১৯৮৭; পৃষ্ঠা ২৫৯-৬২) #আওয়ামী মহাজোটের নেতা হিসেবে একটি সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও হাসিনার ক্যাবিনটের বিগত তথ্যমন্ত্রি বিশিষ্ট চাপাবাজ ‘কমরেড’ ইনু সম্পর্কে পিলে কাঁপানো কিছু তথ্য প্রকাশ করেছিল দৈনিক আমাদের সময়। ২০০৯ সালের ৫ নভেম্বর প্রকাশিত এক রিপোর্টে দৈনিকটি জানিয়েছিল—‘১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট রাষ্ট্রপতি শেখ মুজিবুর রহমান নিহত হওয়ার পর হাসানুল হক ইনু শাহবাগস্থ বেতার ভবনে গিয়ে অভ্যুত্থানের নায়কদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন এবং রাজনৈতিক পটপরিবর্তনের প্রতি সর্বান্তকরণে সমর্থন জানিয়েছিলেন। তিনি একা যাননি, গিয়েছিলেন তার গুরু লে. কর্নেল (অব.) আবু তাহেরের সঙ্গে। তাহের তখন জাসদের গণবাহিনীর অধিনায়ক, আর ইনু ছিলেন গণবাহিনীর পলিটিক্যাল কমিশনার।’ জাসদের গণবাহিনীর পক্ষ থেকে প্রচারিত লিফলেটে বলা হয়েছিল, ‘খুনি মুজিব খুন হয়েছে—অত্যাচারীর পতন অনিবার্য। #জাসদের প্রধান নেতা লে. কর্নেল তাহের বলেছিলেন, “ওরা বড় রকমের একটা ভুল করেছে। শেখ মুজিবকে কবর দিতে অ্যালাও করা ঠিক হয়নি। এখন তো সেখানে মাজার হবে। উচিত ছিল লাশটা বঙ্গোপসাগরে ফেলে দেওয়া।“

In any case, coming back to the point, along with the resting place of Mujib, couldn’t Sultan Mansour afford to visit the resting place of Zia not only as a mark of respect with balance and moderation but also as a sign of gratitude and thankfulness to the “Dhaner Sheesh” electoral constituents that voted for him? Did he forget them soon after he got what he wanted, their votes? What a betrayal! People expect their leaders to be morally upright and provide leadership by example. It is similar to the story of Badrudduza Chowdhury, rendered a lightweight (down from the status of an erstwhile heavyweight), who, as the BNP-appointed president, in a stark betrayal, would like to do the same—wishing to visit Mujib’s burial site (though only as a symbolic and ceremonial show but, nonetheless, politically a significant one), but not the graveyard of his principal promoter and benefactor Zia. Later, in Ershad-type bizarre antics, Chowdhury joins the Awami alliance again and again (2008 and 2018). What a perfidy! What an immoral breach of trust!
President Ershad was made a General and Chief of Army by President Zia and later, it is widely suspected, he had a close collusion and cooperation (rather than a collision) with the conspirators who carried out the assassination of Zia. What a case of utter and outrageous unfaithfulness! Similarly, Moinuddin Ahmed, appointed the Army Chief by the BNP, turned against the BNP in a breach of trust. Sohel Taj, son of Tajuddin, was once highly critical of the ongoing Hasina fascism, but would still unnecessarily campaign for her Awami sister who was gong to get auto-elected anyway as an MP under Hasina in the farcical Hasina-marka election that was completely rigged and stolen in an unprecedented manner. Elections, municipal or parliamentary, have been rigged and stolen not once but all the time during the last decade of this raw and ruthless regime. The massive nocturnal as well as diurnal electoral fraud and vote-and-ballot dacoity continuously committed in all elections, local or national, under the harrowingly ruling Hasina, that is only comparable with the regime’s alarmingly digital bank dacoity and its endless police and judicial oppression of the opposition, compelled the BNP to boycott many of them altogether.
Sheikh Hasina was in strong political alliance with the Jamaat when circumstances suited her to use them against the BNP but then, when circumstances favoured her the other way, she embarked on a highly selective and handpicked judicial process of having the Jamaat leaders, now that they are allied with the BNP, hanged to death and completely eliminating the Jamaat as a party. What a perfidy! What a case of cruel and crooked political expediency! The same is the story of Hasina taking with her those Awamis and others such as Hasanul Inu who openly celebrated her father Mujib’s assassination in 1975, in a shocking betrayal of her sire’s blood. What a treacherous daughter in power? Isn’t she a Goneril or a Regan who, after hypocritically securing the possession of their old father King Lear’s kingdom, turned against him (who calls them tigresses), ultimately to their own destruction? By the way, Hasina’s so-called Indian “fast” friends would not even consider her Mujib to be one of the top fourteen Bungalees, just as they would not hesitate to grab all Bangladesh liberation war records to hide the truth about their misdeeds and the heroism of the freedom fighters of Bangladesh! (See Appendix D).
Indians would also threaten to grab Bangladesh the way Hasina, with their active backing and blessings, grabbed the state power of Bangladesh. She is also letting her treacherous Indian friends keep killing innocent Bangladeshis at the border, selling rot and useless stuff to Bangladesh, asking for Bangladeshi land for businesses, and spreading Hindu aggression of Bangladeshi Muslim culture and heritage (see Appendix D). She would also let her “master” (rather than a “friend”) India make billions annually ($10b in 2017 alone) from Bangladesh that would allow 500,000 to 1 million Indians work illegally at the expense of a staggering number of Bangladesh’s own locals, who are thus miserably left unemployed (see Appendix D). Sheikh Hasina would also make dozens of agreements to the sole benefit of India in a sellout of Bangladesh’s interest. When the Hindus are only a small minority (about 8.5 percent) in Bangladesh and when their contribution to the liberation war was zero to negligible, they are unduly and undeservedly privileged to hold 25% of government jobs—high class jobs in key positions, such as OCs, DCs, Directors, Managers, Secretaries, VCs and many executive positions in the Central Bank of Bangladesh and the Ministry of Education, for example (see Appendix D). All this is at the cost of the interest of the Muslim majority, who have virtually become the second class “minority” in their own country. What an unfair and unequal Hasina policy, to the deprivation of the majority of the population! This is all to please and favor her overlord India which helps her to continue in her fascistic power, to the direct advantage of corrupt Awami thugs and thieves and their criminal cronies and cohorts.
It is the same way that Hasina, as her foreign minister Abdul Momen declared, would happily maintain a subservient husband-wife relationship between the violently communal and sectarian India and the communally peaceful and harmonious Bangladesh (see Appendix D). “We utterly condemn the barbaric religious persecution in India,” writes Zoglul Husain of the UK (in a group email of 30 July 2019) in reference to the waves of violent killing of Muslims in India, especially the recent axing of a Muslim youth to death. “BJP-RSS and their likes,” continues Husain, “instigated thousands of communal riots, in which hundreds of thousands of non-Hindus were killed. India’s socio-economic system is at the root of religious persecutions. India’s Dalit system is a slavery (it is worse than slavery in that a slave can be bought and freed, but a Dalit cannot be freed, he/she remains a Dalit for generations, as long as a Dalit remains within the fold of Hinduism). The Dalits and semi-Dalits are classed (by the govt) as Scheduled Caste (SC), Scheduled Tribe (ST) and Other Backward Classes (OBC). They constitute about 75% of Indian population. Hence, 75% of Indian population are under a slavery system. The remaining 25% are under an apartheid system of 4 castes (4 tiers of supremacy): Brahmins, Kshatriyas, Vaishyas, and Shudras. According to Sachar Committee report, the status of Muslims in India is below the status of the Dalits.”

Bangladesh remains, therefore, a place where there is a dictator called Sheikh Hasina, with all the traits and characteristics of a neo-fascist, who is surviving by the only means she relies upon and resorts to—her (Indian RAW-infiltrated) police and their beastly force that are her sheer messiah—her sole savior. Completely divorced and disconnected from the people’s support which, even in a small amount, is her daydream, her terror and tyranny are routinely exacerbated by her partisan and ferocious police who are given a free hand in exercising their fiendish force in eliminating and annihilating the popular opposition BNP. Hasina’s abysmal notoriety for rigging and stealing elections, year after year, from local to national, and municipal to parliamentary, has known no limit. It has already far exceeded the boundaries for which she has been eternally consigned to the bottomless pit of popular sneer and dislike. She has proved her ways to achieve her evil ends not just once but at least twice, first on 5 January 2014 and then on 30 December 2018 that was actually rigged the the day before. That she actually proves her self-serving and conceited agenda on a daily basis can hardly be exaggerated. It is demonstrated by her ongoing ruthless oppression and repression of the opposition for the last ten years and more and the unbridled corruption by her goons and gangs, cronies and cohorts, and lackeys and sycophants, her own family being not free from such suspicions and allegations.

[1]  That Mujib was in doldrums about the independence of Bangladesh is a well-documented fact:

  1. www.facebook.com/898622766846354/photos/২৫-মার্চের-সন্ধ্যা-৬-টা-থেকে-মুজিবের-গ্রেফতার-হওয়া-পর্যন্ত-পুরো-ঘটনা-প্রমাণসহ-তু/1448831995158759/;
  2. www.facebook.com/permalink.php?id=465710890547039&story_fbid=655324654918994; www.facebook.com/permalink.php?story_fbid=633932380145244&id=372318362973315&__xts__%5B0%5D=; 
  3. http://southasiajournal.net/was-sheikh-mujib-for-an-unbroken-pakistan-or-independent-bangladesh-sensational-revelation-about-mujib-in-pakistan-in-1971-%EF%BB%BF/;
  4. http://southasiajournal.net/%EF%BB%BFsheikh-mujibur-rahman-a-man-of-ten-seconds/
  5. https://www.priyo.com/articles/mohiuddin-ahmad-talks-about-bangabandhu-sheikh-mujibur-rahman-s-death-issue-20170814.

On the other hand, for a short description of Zia’s greatly heroic and exemplary role in March 1971 and later, see:

  • www.facebook.com/permalink.php?id=251079129118029&story_fbid=281343636091578;
  • https://bdpolitico.com/?p=920
  • “… ৩০ মে থেকে ৩রা জুন যে লাখ লাখ জনতা শুধু ঢাকা নগরীতেই নয়, গোটা বাংলাদেশে তাদের অনুভূতি প্রকাশ করেছে, তার মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে যে, আমাদের সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের মানুষের কত কাছাকাছি এবং প্রাণপ্রিয় ছিলেন। এটা বলতে যদি কেউ কুণ্ঠাবোধ করেন, এটা তার মানসিক দৈন্য এবং তার রাজনৈতিক বিচক্ষণতার অভাব বলে আমি মনে করি। এই যে লাখ লাখ জনতার স্রোত কেন এসেছিল, এই লাশটির পাশে, কেন এসেছিল জানাজায় ও গায়েবি জানাজায়? এসেছিল একটি মাত্র কারণে—তার সততার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে।” – গণতন্ত্রী পার্টির সংসদ সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত (সিলেট-২) সংসদে আনীত শোক প্রস্তাবে তার দল ও নিজের পক্ষ থেকে / ৩ জুন ১৯৮১

[1]  For details, see my Bangladesh: Political and Literary Reflections on a Divided Country, Chapter 14:

“When Bangladesh Is Divided Over Its National Anthem ‘Amar Sonar Bangla’ (A Tagore Song): A Politico-Literary Perspective,” pp. 465-492. For Mujib’s disagreement, see the daily, Dainik Songram, 12 April 1997/ দৈনিক সংগ্রাম, ১২/০৪/৯৭; Dainik  Janakantho, 6 August 1996/দৈনিক জনকণ্ঠ, ৬ই আগস্ট, ১৯৯৬ । For further confirmation, see the major Indian dailies in New Delhi, dated 12 January 1972, that carried the news of Mujib’s displeasure with the choice of Amar Sonar Bangla on his way from London to Dhaka via Delhi. Ilyas Husain,জাতীয় সংগীত শিরিকের আড্ডাখানা, বাংলাদেশ নিয়ে গালি দিলো রবিন্দ্রনাথ https://youtu.be/6w2GkPHOuKg. In my book (p. 485), I suggest that the short poem, স্বাধীন বাংলাদেশ / Independent Bangladesh by Talim Hussein be made a candidate for consideration for a new selection. Also see: রবীন্দ্রনাথের পৌত্তলিক চেতনা এবং বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গিত www.drfirozmahboobkamal.com/blog/পৌত্তলিক-রবীন্দ্রনাথ-ঈম/; রবীন্দ্রনাথ, জাতীয় সংগীত ও ধর্ম https://youtu.be/rU17IsWSmqw; জাতীয় সংগীত কেন পরিবর্তন দরকার জানুন এ সংগীতের ইতিহাস https://youtu.be/Oc_twh_tpZs; রবীন্দ্র নাথের লেখা আমার সোনার বাংলা কি স্বাধীন বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত থাকা উচিত? https://youtu.be/6tPk3-8QIwE; জাতীয় সংগীতের গোপন রহস্য ফাঁস করলেন https://youtu.be/W8c7CTaZQVE; স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর জাতীয় সংগীত ভুল ধরলো https://youtu.be/sMLTBx8ZTUA

[1] See the second (June 2014) edition of her book, p. 212. Also, www.mzamin.com/details-archive2014.php?mzamin=21079; ভারত-ভাগের নাটকীয় ঘটনাবলী, তরুণ শেখ মুজিবুর রহমানের বয়ানে https://www.bbc.com/bengali/news-40923212

[1] www.facebook.com/mohammadshamsulalam/posts/10159438853618636;

১৫ আগস্ট একদলীয় স্বৈরাচারী বাকশাল পতন দিবস www.facebook.com/photo.php?fbid=2262863323789865&set=a.223276921081859&type

[1] পুলিশ পাচ্ছে আরও ক্ষমতা আসছে নতুন আইন www.jugantor.com/old/first-page/2013/06/11/4264; www.dailynayadiganta.com/politics/417870/বিএনপির-কেন্দ্রীয়-নেতা-হাসান-মামুন-গ্রেফতার;

www.jugantor.com/politics/213403/আমীর-খসরুসহ-বিএনপি-জামায়াতের-৪৫৩-নেতাকর্মীর-বিচার-শুরু;

www.newagebd.net/article/82601/awami-league-has-history-of-murdering-political-opposition-fakhrul;

www.dailynayadiganta.com/politics/418151/ডিজিটাল-বাংলাদেশের-নামে-ডিজিটাল-দুর্বৃত্তপনার-শেষ-নেই-রিজভী

Print

Sheersha Khobor / A A

The news has read 1059 times

 
 
 
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com